একজন সফল উদ্যোক্তা আলিবাবার ‘জ্যাক মা’

jack maa
জ্যাক মা

সাফল্য সাফল্য করে অনেক ছুটোছুটি করলেও যারা সাফল্যের দেখা পাচ্ছেন না, তাদের জন্য রীতিমতো বোমা ফাটালেন আলিবাবার চেয়ারম্যান জ্যাক মা। তিনি বলেছেন, ৩৫ বছর বয়সেও যদি আপনি ধনী হতে না পারেন, টাকাপয়সা নিয়ে চিন্তা করতে হয়, তাহলে সেটা আপনারই দোষ। আর কারও নয়।

চীনের শীর্ষ একটি দৈনিকে নিজের লেখা কলামে জ্যাক মা এ মন্তব্য করেন।

কলামের শুরুতে তিনি বন্ধুদের সাথে আলিবাবার আইডিয়া শেয়ারের কথা স্মৃতিচারণ করেন। তিনি বলেন, ’২৪ জন বন্ধুর সাথে আলাপ করেছিলাম। টানা দুই ঘণ্টা সব বোঝানোর পরও তারা দ্বিধায় ভুগছিল। ২৪ জনের মধ্যে ২৩ জনই বলছিল এই আইডিয়া বাদ দিতে। আমার নাকি ইন্টারনেট নিয়ে ধারণা নেই। মূলধন নেই।’

এরপর মা বুঝতে পারেন সাফল্যের জন্য তার নিজের পরিশ্রম করতে হবে। এই সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর ৫০ বছর বয়সী মা এক মুহূর্তের জন্যেও কাজ করা থামাননি।

জ্যাক মা চীনের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি। তার মোট সম্পত্তি প্রায় ৩০ বিলিয়ন (তিন হাজার কোটি) ডলার। বিশ্বের ১৮তম শীর্ষ ধনী ব্যক্তি তিনি, তার কোম্পানি আলিবাবা অ্যামাজনের পর বিশ্বের সবচেয়ে বড় ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান।

কলামে জীবনে ব্যর্থতার জন্য চারটি বিষয়কে দায়ী করেন মা। এগুলো হলো- দূরদৃষ্টির অভাব, সুযোগ হাতছাড়া করা, জীবনকে ‘বুঝতে’ না পারা ও সময় মতো উদ্যোগ না নেওয়া।

তিনি বলেন, কারও ভবিষ্যত নির্ভর করে তার উচ্চাকাঙ্খার ওপর। দরিদ্র থাকার মধ্যে কোনো কৃতিত্ব নেই। ৩৫ বছর বয়সেও যদি আপনার দারিদ্র না কাটে, জীবনে কিছু করতে না পারেন, তাহলে সেটা আপনারই দোষ।

বিশ্বের অন্যতম সফল এই উদ্যোক্তা জীবনের শুরুতে অনেক প্রতিকূলতার মুখোমুখি হয়েছিলেন। কলেজের ফাইনাল পরীক্ষা তিনবার দিয়েও পাশ করতে পারেননি। কলেজ থেকে বের করে দেওয়ার পর ৩০টির বেশি চাকরির জন্য আবেদন করে সবখানে প্রত্যাখ্যান হয়েছিলেন।

Facebook Comment

You May Also Like