সরষে - সঞ্জীব চট্টোপাধ্যায়

সরষে – সঞ্জীব চট্টোপাধ্যায়

আমি অনশন করব, আমৃত্যু অনশন। সকালে চায়ের কাপ হাত দিয়ে ঠেলে সরিয়ে জানালার দিকে মুখ বাড়িয়ে বসলেন প্রকাশবাবু। ঘটনাস্থল কলকাতার উপকণ্ঠে মধ্যবিত্ত পাড়ার সদ্যনির্মিত একটি বাড়ির দোতলার ঘর। পশ্চিম খোলা।…

পাদটীকা - সৈয়দ মুজতবা আলী

পাদটীকা – সৈয়দ মুজতবা আলী

গত শতকের শেষ আর এই শতকের গোড়ার দিকে আমাদের দেশের টোলগুলো মড়ক লেগে প্রায় সম্পূর্ণ উজাড় হয়ে যায়। পাঠান-মোগল আমলে যে দুর্দৈব ঘটেনি ইংরাজ রাজত্বে সেটা প্রায় আমাদেরই চোখের সামনে…

পুনশ্চ - সৈয়দ মুজতবা আলী

পুনশ্চ – সৈয়দ মুজতবা আলী

অভিজ্ঞতাটা হয়েছিল প্যারিসে। কিন্তু এ রকম ধারা ব্যাপার বার্লিন, ভিয়েনা, লন্ডন, প্রাগ যে-কোনো জায়গায় ঘটতে পারত। প্যারিসে আমার পরিচিত যে কয়টি লোক ছিলেন তাঁরা সবাই গ্রীষ্মের অন্তিম নিশ্বাসের দিনগুলো গ্রামাঞ্চল…

বেলতলাতে দু-দুবার - সৈয়দ মুজতবা আলী

বেলতলাতে দু-দুবার – সৈয়দ মুজতবা আলী

বার্লিন শহরে ‘হিন্দুস্থান হৌসে’র আড্ডা সেদিন জমিজমি করেও জমছিল না। নাৎসিদের প্রতাপ দিনের পর দিন বেড়েই যাচ্ছে। আড্ডার তাতে কোনো আপত্তি নেই, বরঞ্চ খুশি হবারই কথা। নাৎসিরা যদি একদিন ইংরেজের…

বিধবা-বিবাহ - সৈয়দ মুজতবা আলী

বিধবা-বিবাহ – সৈয়দ মুজতবা আলী

আমাদের পুজোসংখ্যা ইংরেজদের ক্রিসমাস স্পেশালের অনুকরণে জন্মলাভ করেছিল কি না সে-কথা পণ্ডিতেরা বলতে পারবেন, কিন্তু একথা ঠিক যে, বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সে ইংরিজি স্পেশালের চেয়ে অনেক বেশি তাড়াতাড়ি বুড়িয়ে…

রোমান্টিক গল্প: 'কনে দেখা'

রম্য গল্প: বাসর ঘরে ন্যাড়া বউ

বাসর রাতে বউয়ের ন্যাড়া মাথা দেখার সাথে সাথেই বাবু অজ্ঞান। বিয়ের রাতে বউয়ের মাথা যে ন্যাড়া থাকে সেটাই বা কে কবে শুনেছে? ডাক্তার নিয়ে এসে যখন বাবুর জ্ঞান ফিরানো হলো।…

ঘ্যাঁঘাসুর - উপেন্দ্রকিশোর রায়চৌধুরী

ঘ্যাঁঘাসুর – উপেন্দ্রকিশোর রায়চৌধুরী

এক যে ছিল রাজা, তাঁর ছিল একটি মেয়ে। মেয়েটি, হইয়া অবধি খালি অসুখেই ভুগিতেছে। একটি দিনের জন্যেও ভাল থাকে না। কত বদ্যি, কত ডাক্তার, কত চিকিৎসা, কত ওষুধ-মেয়ে ভাল হইবে…

দুষ্ট দানব - উপেন্দ্রকিশোর রায়চৌধুরী

দুষ্ট দানব – উপেন্দ্রকিশোর রায়চৌধুরী

এক দানব আর এক চাষা, দুজনে পাশা খেলছিল। খেলায় চাষার হার হল। পাশায় হেরে চাষা হায় হায় করতে লাগল। খেলবার আগে সে বাজি রেখেছিল যে, সে হারলে দানব তার ছেলেটিকে…

ঠাকুরদা -উপেন্দ্রকিশোর রায়চৌধুরী

ঠাকুরদা -উপেন্দ্রকিশোর রায়চৌধুরী

একগ্রামে এক বুড়ো ব্রাহ্মণ ছিলেন। তাঁর নাম ছিল ভবানীচরণ ভট্রাচার্য। গ্রামের ছেলেদের সঙ্গে তাঁর খুব ভাব ছিল। তাঁরা তাঁকে বলত ঠাকুরদাদা। তাদের কাছ থেকে শিখে দেশসুদ্ধ লোকেও তাঁকে ঐ নামেই…

পণ্ডিতের কথা - উপেন্দ্রকিশোর রায়চৌধুরী

পণ্ডিতের কথা – উপেন্দ্রকিশোর রায়চৌধুরী

সেই যে হবুচন্দ্র গবুচন্দ্র মন্ত্রী ছিল, সেই হবুচন্দ্র রাজার একটা ভারি জবর পণ্ডিতও ছিল। তার এতই বুদ্ধি ছিল যে, তার পেটে অত বুদ্ধি ধরত না। তাই তাকে দিন রাত নাকে…

তিনটি বর - উপেন্দ্রকিশোর রায়চৌধুরী

তিনটি বর – উপেন্দ্রকিশোর রায়চৌধুরী

এক দেশে এক কামার ছিল, তার মত অভাগা আর কোনো দেশে কখনো জন্মায় নি। তাকে এক জিনিস গড়তে দিলে তার জায়গায় আর-এক জিনিস গড়ে রাখত। একটা কিছু সারাতে দিলে তাকে…

কাজির বিচার - উপেন্দ্রকিশোর রায়চৌধুরী

কাজির বিচার – উপেন্দ্রকিশোর রায়চৌধুরী

রামকানাই ভাল মানুষ-নেহাত গোবেচারা। কিন্তু ঝুটারাম লোকটি বেজায় ফন্দিবাজ। দুইজনে দেখা-শোনা আলাপ-সালাপ হল। ঝুটরাম বললে, ‘ ভাই দুজনেই বোঝা বয়ে কামকা কষ্ট পাই কেন? এই নাও, আমার পুঁটলিটাও তোমায় দিই-এখন…