Saturday, July 13, 2024
Homeআরওলাইফস্টাইলজীবনের কঠিন মুহূর্তে শান্ত থাকার কৌশল!

জীবনের কঠিন মুহূর্তে শান্ত থাকার কৌশল!

অর্থনৈতিক দুর্দশা, জটিল কোনো রোগের আক্রমণ, প্রিয়জনের সঙ্গে বিচ্ছেদ ইত্যাদি কঠিন সময়গুলোতে অধিকাংশ ক্ষেত্রেই মানসিকভাবে ভেঙে পড়ি আমরা। আর ভেঙে পড়াটা অস্বাভাবিকও নয়।

জীবনের এসব কঠিন মুহূর্তে নিজের প্রতি বিশ্বাস কমে যায়, উদ্বেগ তৈরি হয়। এই অস্বস্তিকর পরিস্থিতিতে বারবার নেতিবাচক চিন্তাই মাথায় আসে। আর এই নেতিবাচক চিন্তাগুলো আপনার ব্যবহারের ওপর প্রভাব ফেলে। তবে মনকে শক্ত রাখতে শিখলে এসব অনুভূতি, আচরণ, আবেগকে নিয়ন্ত্রণ করা যায়।

নিজেকে মানসিকভাবে শক্তিশালী রাখতে তিনটি কৌশল জানিয়েছে মানসিক স্বাস্থ্যবিষয়ক ওয়েবসাইট সাইকোলজি টুডে।

বাস্তবতাকে মেনে নিন

মানসিকভাবে শক্তিশালী থাকার একটি অন্যতম সূত্র হলো বাস্তবতাকে মেনে নেওয়া। ধরুন, আপনি ট্রাফিক জ্যামে আটকে রয়েছেন। কিন্তু আর কিছুক্ষণ পরেই আপনার খুব জরুরি একটি মিটিং। খুব বিরক্ত লাগছে এই সময়। রাগ হচ্ছে, উদ্বেগ হচ্ছে এবং হতাশও লাগছে। এমন সময় আপনি কী করবেন? একটু আশপাশে তাকান। দেখবেন, আরো কিছু গাড়িও একইভাবে আটকে রয়েছে। সেসব গাড়িতে যাঁরা রয়েছেন, তাঁরাও কিন্তু আপনার মতোই অবস্থাতে পড়েছেন।

এভাবে ভাবলে দেখবেন নিজেকে একটু শান্ত করতে পারছেন, নিয়ন্ত্রণ  করতে পারছেন। আসলে যখন অবস্থা পরিবর্তন করা যায় না, তখন বাস্তবতাকে মেনে নেওয়াটাই আপনাকে মানসিকভাবে শক্তিশালী রাখতে সাহায্য করবে।

নেতিবাচক চিন্তা পরিত্যাগ করুন

আপনার মনই আপনার সবচেয়ে বড় বন্ধু, আবার বড় শত্রুও। কথায় বলে, ‘বনের বাঘে খায় না, মনের বাঘে খায়’। কোনো কিছু নিয়ে বারবার নেতিবাচক চিন্তা করা মানসিক শক্তিকে নষ্ট করে দেয়।

ধরুন, যদি বারবার চিন্তা করতে থাকেন, ‘আমি কাজটি পারব না’ বা ‘আমাকে দিয়ে এই কাজ হবে না’। তাহলে আসলে যতটুকু পারতেন, সেটিও হবে না। তাই নেতিবাচক চিন্তা বা যেই চিন্তাগুলো করলে মন খারাপ হয়ে যায়, সেগুলো নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করুন।

নেতিবাচক চিন্তা দূর করতে মনে মনে ইতিবাচক অটোসাজেশন দিতে পারেন। নিজেকে বলতে পারেন, ‘ আমি পারব’, ‘আমি করব’, ‘আমার সব সমস্যার সমাধান হবে’।

শান্ত থাকুন

কঠিন পরিস্থিতিতেও শান্ত থাকার অভ্যাস খুব বড় গুণ। এই গুণটি আপনাকে মানসিকভাবে শক্তিশালী করবে। যদিও বিষয়টি অতটা সহজ নয়। তবে নিজের ভেতরের অস্থিরতাকে নিয়ন্ত্রণ করে শান্ত থাকতে পারলে দেখবেন অনেক কঠিন বিষয়ও আপনার অনুকূলে চলে আসছে।

Anuprerona
Anupreronahttps://www.anuperona.com
Read your favourite literature free forever on our blogging platform.
RELATED ARTICLES

Most Popular

Recent Comments