সক্রেটিসকে এক যুবকের জিজ্ঞাসা ‘সফলতার রহস্য কি?’

সক্রেটিসকে সফলতার রহস্য কি

প্রাচীন গ্রিক দার্শনিক সক্রেটিসের (খ্রিস্টপূর্ব ৪৭০ – খ্রিস্টপূর্ব ৩৯৯) কথা আমরা সকলেই শুনেছি। পৃথিবীর ইতিহাসে অন্যতম একজন জ্ঞানী ব্যক্তি হিসেবে তাঁকে মনে করা হয়। তাঁকে নিয়ে বিখ্যাত কিছু গল্প আছে। এর মধ্যে অন্যতম একটি গল্প সফলতা নিয়ে। চলুন আজ আমরা সফলতা নিয়ে সক্রেটিস ও এক যুবক এর গল্পটি শুনে আসি।

কোনো একসময় একজন যুবক সক্রেটিসকে সফলতার রহস্য জিজ্ঞাসা করলেন। সক্রেটিস যুবকটিকে তার পরের দিন সকালে নদীর ধারে তার সাথে দেখা করতে বললেন। যুবকটি পরদিন সকালে তার সাথে দেখা করতে এলে সক্রেটিস যুবকটিকে তার সাথে নদীর দিকে হাঁটতে বললেন।

এভাবে হাঁটতে হাঁটতে তারা যখন নদীর পানির মধ্যে গেলো এবং পানি যখন ঘাড় স্পর্শ করলো, তখন সক্রেটিস হঠাৎ করে যুবকটির ঘাড় পানিতে ডুবিয়ে ধরে রাখলেন। ছেলেটি পানির ভেতর থেকে তার ঘাড় বের করার জন্য খুব চেষ্টা করতে লাগলো। কিন্তু সক্রেটিস তার মাথা আরো জোরে পানির মধ্যে চেপে বেশ কিছু সময় ধরে রাখলেন, এবং এক সময় বাতাসের অভাবে ছেলেটির চেহারা নীল হয়ে গেলো। এবার সক্রেটিস তার মাথাকে পানি থেকে টেনে বের করলেন। যুবকটি মুমূর্ষুর মতো হাপাতে হাপাতে হা করে গভীরভাবে শ্বাস নিলো, তার কাছে মনে হলো, এইমাত্র সে মৃত্যু থেকে জীবন ফিরে পেলো।

এবার সক্রেটিস তাকে জিজ্ঞাসা করলেন, “তোমার মাথা যখন পানির মধ্যে ডুবানো ছিলো তখন তুমি সবচেয়ে গভীরভাবে কোন জিনিসটি চেয়েছিলে?” ছেলেটি উত্তর দিল, “আর কিচ্ছু নয়, শুধুই বাতাস”।

সক্রেটিস বলেন, “That is the secret to success.”

“পানিতে তোমার মাথা ডুবে থাকার সময় বাঁচার জন্য যেভাবে তুমি সাংঘাতিকভাবে বাতাস চেয়েছিলে, ঠিক সেইভাবে যদি তুমি সাফল্য অর্জনের জন্য চেষ্টা কর, তখন তুমি অবশ্যই সফল হবে। এছাড়া সাফল্যের আর অন্য কোন রহস্য নেই।”

শিক্ষা:

যে কোনো ক্ষেত্রে সফলতার জন্য সবচেয়ে যে জিনিসটি বেশি প্রয়োজন, সেটি হলো- জ্বলন্ত আকাঙ্ক্ষা বা burning desire. অল্প আগুন যেমন বেশি তাপ দিতে পারে না, ঠিক তেমনই একটি দুর্বল প্রচেষ্টা খুব ভাল ফলাফল উপহার দিতে পারে না। যে কোনো লক্ষ্য অর্জনের জন্য সাফল্যের অনুপ্রেরণা আসে জ্বলন্ত আকাঙ্ক্ষা থেকে।

সুতরাং মনের মধ্যে সাফল্যের আগুনকে জ্বালিয়ে দিন দাউদাউ করে, সেটি হতে পারে যে কোনো লক্ষ্য অর্জনের জন্য। সফলতা আসবেই, আজ অথবা কাল।

Facebook Comment

You May Also Like