রাজা ও রাখালের একটি মজার গল্প

king and storyteller

একদেশে এক রাজা ছিল। রাজা গল্প শুনতে ও বলতে খুব ভালবাসত। গল্প শুনার জন্য সে তার নিজ প্রাসাদে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করল। একদিন তার প্রাসাদের সব লোকেদেরকে বলল যে আমাকে গল্প বলে শেষ করতে পারবে তাকে পুরুস্কার দেওয়া হবে।

পুরুস্কার হিসেবে রাজা তার অর্ধেক সম্পদ দেওয়া হবে। এ কথা শুনে রাজা প্রাসাদে সবাই এক এক করে আসল এবং সবাই রাজাকে এক এক করে সবাই গল্প শুনাতে লাগল কিন্তু গল্প শেষে রাজা বলত এর পর কি?

কেউ আর রাজার গল্প শেষ করতে পারে না। তাদের মাঝে এক রাখাল ছেলে ছিল। সে ছিল চালাক ও বুদ্ধিমত্তা। সে বলে উঠল আমি রাজার গল্প শেষ করে দিতে পারব। সবাই তার দিকে তাকিয়ে রইল। রাজা বলল তাহলে তুমি বল। রাখাল গল্প বলা শুরু করল, এক পাখি শিকারি ছিল। সে পাখি শিকার করত। দুই একটা পাখি শিকার করে সে ক্লান্ত হয়ে গেল।

সে একদিন ভাবল আমি পৃথিবীর সব পাখি গুলো শিকার করব। পৃথিবী জুড়ে একটি জাল বানাল আর সমস্ত খাবার জালের ভিতরে দিল। জালের ছিদ্র দিয়ে এক এক করে পৃথিবীর সব পাখি ঢুকে পড়ল। তারপর শিকারি জালে একটি ছিদ্র করে দিল।

আর ওই ছিদ্র দিয়ে এক এক করে পাখি ফুড়ৃৎ করে উড়ে যায়। জমিদার বলল এরপর কি? রাখাল বলল, ফুড়ুৎ। রাজা বলল এর পর কি? রাখাল আবারও বলল ফুডুৎ। রাজা রাখলকে বলল তুমি ফুড়ুৎ ফুড়ুৎ বারবার বল কেন?

রাখাল বলল রাজা মশাই এত গুলো পাখি যেতে সময় লাগবে না? রাজা বলল হ্যা, অবশেষে রাজা তার গল্প শেষ খুজে পেল এবং খুশি হয়ে রাজার অর্ধেক সম্পদ পুরুস্কার পেল।

You May Also Like