একজন কৃপণ লোক ও গুপ্তধন এর কাহিনী

একজন কৃপণ লোক ও গুপ্তধন এর কাহিনী

এক ছিল কৃপণ যার একটি বিশাল বড় বাগান ছিল ও সেই বাগানে সে অনেক অনেক সোনা কয়েকটি হাড়িতে ভোরে মাটিতে পুঁতে রেখেছিল। প্রতিদিন রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে সে ওই হাঁড়িগুলি দেখতে যেতে একেবারেই ভুলত না।

একদিন একটি চোর লোকটির প্রতিদিনের এই অভ্যেস লক্ষ্য করে সময় খুঁজে সবকটি সোনার হাড়ি থেকে শোন্ সোনা চুরি করে নিয়ে পালিয়ে যায়। পরের দিন সকালে এরকম কান্ড দেখে লোকটি তারস্বরে চিন্তকর করে কাঁদতে শুরু করে।

এই শুনে তার প্রতিবেশী ছুটে এসে সমস্ত কিছু জানতে পেরে তাকে জিজ্ঞেস করে, ‘আপনি আপনার সমস্ত সম্পত্তি ঘরে না রেখে বাইরে কেন রাখতেন? তাহলে তো আপনার সেগুলি কেনাকাটা করার সময়ও আপনার খরোচ করতে কাজে লাগত।’’

“খরচ!” চিৎকার করে ওঠে লোকটি। “আমি কোনোদিনও আমার সোনা খোঁচা করিনি, করতামও না।”

একথা শুনে তার প্রতিবেশী বলে ওঠে, “তাহলে আজ থেকে এই পাথরগুলি জমাতে থাকুন। এগুলি আপনার সোনার মতোই অকেজোভাবে জমতে থাকবে। কোনো তফাৎ নেই.”

শিক্ষা: যেকোনো রকমের সঞ্চয় তখনই কাজের হয় যখন সেগুলি কাজে আসে।

Facebook Comment

You May Also Like