কালসন্ধ্যা - মনোজ সেন

মধুকর সংবাদ – মনোজ সেন

দিব্যি সাংবাদিকদের ঘরে বসে আড্ডা দিচ্ছিলুম। হঠাৎ ধনঞ্জয় এসে বলল, ‘অ্যাই টেকো, তোকে এডিটর ডাকছেন। ভেরি আর্জেন্ট।’ আমাকে টেকো বললে আমার ভীষণ রাগ হয়। তেড়েফুঁড়ে উঠে ধনঞ্জয়কে গালাগাল দিতে যাচ্ছিলুম, সে বলল,…

কালসন্ধ্যা - মনোজ সেন

ভাতে পড়ল মাছি – মনোজ সেন

দুপুর থেকে হিমশীতল হাওয়া বইছে, আকাশ ধূসর মেঘে ঢাকা। সন্ধ্যের আগেই অন্ধকার ঘনিয়ে আসছে। মনে হচ্ছে, একটু পরেই বরফ পড়তে শুরু করবে। অনীতা মুখার্জি গায়ের ওপর শালটা ভালো করে জড়িয়ে নিলেন, কিন্তু…

কালসন্ধ্যা - মনোজ সেন

চতুরঙ্গ – মনোজ সেন

বিকেলের পড়ন্ত আলোয় চ্যাটার্জি পাড়ার বিনানি হাউসের সামনে সুব্রত রায়ের স্টেশন ওয়াগনটা এসে দাঁড়াল। সকলের আগে গাড়ি থেকে নেমে হৈমন্তী বাড়িটার সামনে গিয়ে দাঁড়াল। অনেকক্ষণ ধরে চোখ কুঁচকে দেখল বাড়িটা। নীচু পাঁচিল…

কালসন্ধ্যা - মনোজ সেন

বাসুকির অভিশাপ – মনোজ সেন

অনেক বছর আগে, সম্ভবত ১৯৫৮ সালে আমাকে একবার বীরভূম জেলার বাঘেরহাট বলে একটা গ্রামে যেতে হয়েছিল। আমি তখন চাটার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট বোস অ্যান্ড ঘোষ অ্যাসোসিয়েটস-এ আর্টিকল্ড ক্লার্ক ছিলুম। আমার অফিস আমাকে বাঘেরহাটে পাঠিয়েছিল…

কালসন্ধ্যা - মনোজ সেন

পিশাচ – মনোজ সেন

বেলা দুটো নাগাদ তন্ময় চ্যাটার্জি আর তাঁর স্ত্রী মনীষা মালদা শহর থেকে রূপনগর গ্রামের দিকে রওনা হয়েছিলেন। ঘণ্টা দুয়েকের রাস্তা, ওঁদের আশা ছিল যে কলকাতা থেকে ওঁদের ফিলম ইউনিটের বাস ওখানে আসবার…

কালসন্ধ্যা - মনোজ সেন

কালসন্ধ্যা – মনোজ সেন

সেদিন রবিবার। দুপুর গড়িয়ে বিকেল হবার মুখে। বাইরে ঝিমঝিম করছে শরতের রোদ। আমরা ক্লাবঘরে বসে আড্ডা দিচ্ছি। আমাদের মধ্যে কয়েক জনের দুপুরের খাওয়াটা একটু বেশি হয়ে গেছে, তাই তারা একটা টেবিলের ওপর…